হাতের লক্ষ্মী পায়ে ঠেলেছে দক্ষিণ ভারতের এক তরুণী। সে খবর ছড়িয়ে পড়তেই তাঁর রূপের ঔজ্জ্বল্য যেন আরেকটু বেড়ে যায়। কয়েক সেকেন্ডের একটি বিজ্ঞাপনে অংশ নিলে দুই কোটি রুপি পারিশ্রমিক পেতেন সেই তরুণী। কিন্তু ওই পণ্যের ঘোর বিরোধী তিনি।

সাই পল্লবী। ছবি : ইনস্টাগ্রাম

সাই পল্লবী।

বিজ্ঞাপনটি ছিল গায়ের রং ফরসাকারী একটি ক্রিমের আর তরুণী অভিনেত্রী সাই পল্লবী। এই প্রত্যাখ্যানের বিস্তারিত পল্লবী তুলে ধরেন বাড়ি থেকে অংশ নেওয়া এক অনলাইন আড্ডায়।

সাই পল্লভী সেনথামারাই

সাই পল্লভী সেনথামারাই

ছোট্ট এক বিজ্ঞাপনের জন্য দুই কোটি রুপি অনেক বড় ব্যাপার। একটা আস্ত সিনেমার জন্য প্রথম সারির অনেক তারকা এই অঙ্কের পারিশ্রমিক পান না। তবে পল্লবী কেন এই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করলেন? শুরুতে নিজের চেহারা নিয়ে হীনম্মন্যতায় ভুগতেন পল্লবী। তিনি বলেন, ‘নিজের ব্রণওয়ালা মুখ আমার নিজেরই ভালো লাগত না। কিন্তু ‘প্রেমাম’ মুক্তির পর দেখলাম, আমি যে রকম, সেই আটপৌরে আমাকেই বরণ করে নিয়েছেন দর্শক।

সাই পল্লভী সেনথামারাই

সাই পল্লভী সেনথামারাই

এ ঘটনা আমার জীবনদর্শন বদলে দিল। আমাকে আরও আত্মবিশ্বাসী করল আর নিজেকে চিনতে শেখাল। কারণ, আমার দেশের নারীরা এই আমারই মতো সাধারণ, মুখে ব্রণের দাগ, খুব লম্বা নয়। আমি তাদের প্রতিনিধিত্ব করতে চাই।’

  1. সাই পল্লবী

    সাই পল্লবী

‘ফিদা’, ‘মারি টু’ ছবির অভিনেত্রী পল্লবীর ছোট বোন শাকসবজি পছন্দ করেন না। কিন্তু তাঁকে বলা হয়েছিল, এসব খেলে ফরসা হওয়া যাবে। ফরসা হতে সে শাকসবজি খেতে শুরু করে। পল্লবী বলেন, ‘দুই কোটি রুপি দিয়ে কী করব, যদি ফরসা হওয়ার জন্য আমার বোনকে ইচ্ছার বিরুদ্ধে সবজি খেতে হয়!’ পল্লবী মনে করেন, যে যেমন, সে সেভাবেই সুন্দর। সেই সৌন্দর্যকে উদ্‌যাপন করা উচিত। যেমনটি তিনি করছেন। বলিউড হাঙ্গামা

By imran

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *