হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।

 

 

জানা গেছে শনিবার সকালে নিজের বাড়িতে জিম করার সময় অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। বুকে প্রচন্ড ব‍্যাথা অনুভব করেন।

 

 

দাদা স্নেহাশিস গাঙ্গুলি এবং স্ত্রী ডোনা নার্সিংহোমে নিয়ে যান। ডাক্তাররা প্রাথমিক চিকিৎসার পর অ্যাঞ্জিওপ্লাস্টি করার সিদ্ধান্ত নেন।

 

 

 

তাঁর শরীরে ৩টি স্টেইন বসানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন চিকিৎসকরা। উডল‍্যান্ডস হাসপাতাল সূত্রে বলা হয়েছে তাঁর অবস্থা স্থিতিশীল

 

 

হাসপাতাল সূত্রে যে মেডিকেল বুলেটিন পরে প্রকাশ করা হয়, সেখানে বলা হয়েছে, বুকে অস্বস্তি নিয়ে হাসপাতালে আসেন সৌরভ। পারিবারিকভাবে হার্টের সমস্যা রয়েছে তাঁরও। পরিবারের এর আগে অনেকেই ইসচেমিক হার্টের সমস্যায় আক্রান্ত হয়েছেন। শনিবার দুপুর ১ টায় যখন তিনি আসেন তখন পালস রেট ছিল স্বাভাবিক (৯০)। রক্তচাপের যে বিবরণ প্রকাশ করা হয়েছে, তা ১৩০/৮০।

 

 

ইসিজি এবং ইকো টেস্টেই যে রিপোর্ট পাওয়া যায়, তাতে অসঙ্গতি ধরা পড়ে। হৃদরোগে যে আক্রান্ত হয়েছে প্রিয় মহারাজ, তা তখনই নিশ্চিত হয়ে যান চিকিৎসকরা। সঙ্গেসঙ্গেই এনজিওপ্ল্যাস্টি করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। চিকিৎসক সরোজ মণ্ডলের অধীনে অস্ত্রোপচার করা হয়। জানা গিয়েছে, তিনটে ব্লকের মধ্যে আপাতত একটিতে এনজিওপ্ল্যাস্টি করে স্টেন বসানো হয়েছে। বাকি দুটো ব্লকের বিষয়ে আলোচনা করে সোমবার সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। আপাতত সৌরভ কড়া পর্যবেক্ষণে রয়েছেন।

 

 

 

রাজ্যপাল জগদীশ ধনকর, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, বোর্ড সচিব জয় শাহ, ভাইস প্রেসিডেন্ট রাজীব শুক্ল প্রত্যেকেই এদিন সৌরভের আরোগ্য কামনায় টুইট করেন। সেই তালিকায় রয়েছেন নাগমাও। বিসিসিআই সভাপতিকে দেখতে হাসপাতালে গিয়েছিলেন রাজ্যের ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী লক্ষ্ণীরতন শুক্লা।

 

 

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় টুইট করে কিংবদন্তির আরোগ্য কামনা করেছেন। মমতার টুইটে লিখেছেন, “সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় মাইল্ড কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে শুনে অত্যন্ত কষ্ট পেয়েছি। তাঁর দ্রুত ও সম্পূর্ণ আরোগ্য কামনা করি। তাঁর পরিবারের জন্যও প্রার্থনা করছি।

By imran

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *